পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন 2022 করার নিয়ম -৩দিনে হাতে পাবেন

বিশেষ করে আমরা যারা বিদেশে যাব বা যেতে চাই তাদের জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্স খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এছারা যারা উচ্চ শিক্ষার জন্য বিদেশে যেতে চাই তাদের এই সাটিফিকেট প্রয়োজন হবে।  কেনটা এই সাটিফিকেট ছারা আপনাকে ভিসার অনুমতি দেয়া হবে না। তাই আপনি যদি ঝামেলা পরার আগে এই সাটিফিকেট টি করে নেন তাহলে আপনার জন্যই ভালো। তাই আমরা এই টিউটোরিয়ালে দেখবো কিভাবে মোবাইল দিয়ে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন ২০২২ অনলাইনে করবেন? বা করতে কি কি লাগবে, ফি কত? এই সমস্ত বিষয় নিয়ে আজকের আলোচনা। 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কী? 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স হলো আপনার নামে কোন থানায় ফৌজদারী মামলার রেকর্ড নেই এর সাটিফিকেট। অর্থাৎ এই সার্টিফিকেট তারা এটাই বোঝাই যে আপনি কোন অপরাধের সাথে জড়িত ছিলেন না। বা আপনি কোন আইন বিরোধী কাজের সাথে জড়িত ছিলেন না। এবং রাষ্ট্রবিরোধী কোনো কাজের সাথে জড়িত ছিলেন না। বাংলাদেশের আইনের দৃষ্টিতে আপনি একজন নিরপরাধ। আপনার নামে কোন ফৌজদারি মামলা নেই। আর এই সকল বিষয়ের জন্য যেই সার্টিফিকেট সেটি হচ্ছে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কেন করবো বা কি কাজে লাগে?

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট একজন নাগরিকের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কেননা এ সার্টিফিকেট ধারা এটাই বোঝায় আপনি একজন সুনাগরিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আপনার নামে কেউ কোনো অপরাধ নিয়ে নালিশ করে নাই।

সুতরাং আপনি যতই সুনাগরিক হোন না কেন এই সার্টিফিকেট ছাড়া অফিসিয়ালি আপনাকে কোন সুনাগরিক হিসেবে গণ্য করা হবে না। আপনি কোন অপরাধের সাথে জড়িত ছিলেন না এই সার্টিফিকেট ছাড়া আপনাকে সেটা গণ্য করা হবে না। তাই ব্যক্তিজীবনে এই সার্টিফিকেট আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই সার্টিফিকেট করার প্রধান উদ্দেশ্য হলো :

  • *আপনি যদি চাকুরি বা উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে যেতে চান তাহলে এই সার্টিফিকেট প্রয়োজন হবে।
  • *আপনি যদি ভ্রমণ  করার জন্য বিদেশে যেতে চান এটা লাগবে।
  • *দেশের অভ্যন্তরে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সার্টিফিকেট প্রয়োজন হয়।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করতে কি কি  লাগবে? 

  • *আবেদনকারীর অবশ্যই তিন মাস মেয়াদ পাসপোর্ট থাকতে হবে।
  • *আবেদনকারীর ঠিকানা অনুযায়ী স্থানীয় থানায় গিয়ে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর আবেদন করতে হবে।
  • * স্থানীয় কমিশনার, চেয়ারম্যান ও মেয়র কতৃক নাগরিক সনদপত্র লাগবে।
  • *আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয় পত্র লাগবে।
  • *আবেদনকারীর জন্ম নিবন্ধন প্রয়োজন হবে।
  • *পাসপোর্ট সাইজ ছবি প্রয়োজন হবে।
  • *সঠিক মোবাইল নাম্বার ও মেইল প্রয়োজন হবে।

উপরের এই সমস্ত ডকুমেন্টস হলে আপনি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স  আবেদন করতে পারবেন।সেক্ষেত্রে আবেদন ফি ৫০০টাকা সরকারি চালান এর মাধ্যমে সোনালী এ জমা দিতে হবে। উক্ত পেমেন্ট মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশ ও অনলাইন কার্ড এর মাধ্যমে জমা দেয়া যায়।

উক্ত আবেদন আপনি যদি দোকানে করেন তাহলে আপনাকে ৩৫০টাকা দিয়ে করতে হবে। কিন্ত এই আবেদন আমরা চাইলে মোবাইল দিয়ে ঘরে বসে করতে পারি।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন ২০২২ করার নিয়ম :

  • প্রথমে আপনি এখানে ক্লিক করুন। এখানে আপনার :নাম,মোবাইল নং,এনআইডি নং ও পাসওয়ার্ড দিয়ে “কন্টিনিউ” ক্লিক করুন।
    পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন ২০২২

     

  • এরপর আপনাকে মোবাইলের মেসেজ অপশন থেকে -আপনার এমন কোডটি “PCC AV 6895 ” পাঠিয়ে দিন 26969 নাম্বারে। এবং আপনার একাউন্ট এক্টিভেট হয়ে যাবে।
    পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন ২০২২

     

  • এরপর আপনি সাইন ইন এ ক্লিক করে আপনার মোবাইল নাম্বার ও পাসওয়ার্ড দিয়ে সাইন ইন ক্লিক করুন।
পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন ২০২২
  • এখন আপনার একাউন্ট ড্যাসবোড ওপেন হবে। সেখানে উপরে দেখুন “এপ্লাই ” সেখানে ক্লিক করুন৷
    পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সাটিফিকেট আবেদন

     

  • এরপর নতুন পেজ ওপেন হবে। এখানে “go abroad” ক্লিক করুন এবং কান্ট্রি “তোমার ভ্রমণ দেশ” সিলেক্ট করুন। এবং নিচে তোমার “পাসপোর্ট তথ্য দিতে হবে”। (অবশ্যই পাসপোর্ট অনুযায়ী)
পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন

 

এখানে সকল তথ্য পূরন করে নিচে তোমার ছবি আপলোড দিতে হবে। ছবির সাইজ ” ১৫০কেবি”হতে হবে। এরপর “সেব এন্ড নেক্সট ” ক্লিক করুন।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কী

 

  • এরপর আপনার পারসোনাল ঠিকানা দিতে হবে। অবশ্যই পাসপোর্ট অনুযায়ী। সকল তথ্য পূরন করার পর সেব এন্ড নেক্সট ” ক্লিক করুন।
  • এরপর এখানে আবেদন কারীর ডকুমেন্টস আপলোড দিতে হবে। পাসপোর্ট, জন্ম নিবন্ধন ও আইডি কার্ড দিলে হবে। (সকল ছবি ২০০কেবি)।এখন “এড ” ক্লিক করে “আপলোড ফাইল” তরপর “আপলোড ” ক্লিক করে। ডকুমেন্টস গুলো আপলোড করে নিন।
    পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কী কী লাগে

     

  • এরপর আপনার সকল তথ্য এখানে সো করবে। আপনি পাসপোর্ট এর সাথে মিলিয়ে নিবেন কোন তথ্য ভুল আছে কিনা। যদি না থাকে তবে “ফাইনাল সাবমিট ক্লিক করুন” এবং “কনফার্ম ” ক্লিক করুন৷
    পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সাটিফিকেট

     

  • এখন পেমেন্ট করার জন্য পেজ ওপেন হবে৷ যদি আপনি বিকাশ অথবা কার্ড এ পেমেন্ট করেন তবে “ক্লিক করুন ” প্রথমটায়। এবং বিকাশ অথবা নগদ এর মাধ্যমে পেমেন্ট দিন৷ পেমেন্ট দেওয়া জন্য “ই চালান ওপেন হবে ” এবং পে ক্লিক করে পেমেন্ট সম্পুর্ন করে চালান ডাউনলোড করে নিন। এরপর প্রথম আবার বেক চলে আসুন।
    পুলিশ ক্লিয়ারেন্স বাংলাদেশ

     

    মোবাইল দিয়ে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স

     

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করার নিয়ম

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন ২০২২

 

  • এখানে “তৃতীয় নাম্বার ” ক্লিক হেয়ার “ক্লিক করুন৷ এবং চালান নাম্বার দিয়ে ” চেক চালান”ক্লিক করুন এবং চালান আপলোড দিন। আপলোড দেওয়া শেষ হলে আপনার আবেদন কপি পাবেন সেটা ডাউনলোড করুন।
    পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন ফরম

     

    পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চালান

     

  • এরপর আপনার পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করা শেষ।

যদি আবেদন সম্পুর্ন ভাবে করা শেষ হয় তবে আপনাকে আপনার পেমেন্ট চালান, আবেদন কপি,জন্ম নিবন্ধন, আইডি কার্ড, ছবি (পাসপোট সাইজ) ও পসপোর্ট ফটোকপি নিয়ে আপনার থানায় যোগাযোগ করুন। থানায় আপনাকে ২৫০০-৩০০০টাকা জমা দিতে হতে পারে। তবে এটা কোন সরকারি ফি না।যখন আপনার আবেদন থানা থেকে কনফার্ম করবে তার ৭দিন-১০দিন এর মধ্যে আপনার পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সাটিফিকেট আপনার জেলা পুলিশ সুপার এর কার্যালয় থেকে সংগ্রহ করতে হবে। আর এইভাবে আপনি অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স  আবেদন করতে পারবেন। আরও :প্রতিবন্ধী ভাতা আবেদন ২০২২

যদি কোন প্রকার সমস্যা হয়ে থাকে তবে আমাদের সাথে কন্টাক করতে পারেন। ধন্যবাদ সবাইকে।

Recent Articles

Related Stories

Leave A Reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay on op - Ge the daily news in your inbox